করোনার কিট বানাবার অনুমতি পেল গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র

Comments

করোনাভাইরাস শনাক্ত করার কিট উৎপাদনের অনুমোদন পেয়েছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।

ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আজ দুপুরে আমরা সরকারের অনুমোদন পেয়েছি। আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যে আমরা কিট উৎপাদনে যাব।’

ডা. জাফরুল্লাহ আরও বলেন, ‘এই কিট তৈরির কাঁচামাল আসবে ইংল্যান্ড থেকে। কাঁচামাল এলেই আমরা প্রোডাকশনে যেতে পারবো। দুই সপ্তাহের মধ্যে এটা বাজারে আসতে পারে। প্রথম দফায় এক লাখ কিট উৎপাদন করা হবে। ১০ লাখ টাকার কাঁচামাল লাগবে। প্রতিটি কিটের দাম হতে পারে ২০০ টাকার মতো। তবে এই কিট সরকারের কাছে বিক্রি করা হবে, জনসাধারণের কাছে নয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘কিট উৎপাদনের কাঁচামাল চীনের কাছেও আছে। তবে চীন বাণিজ্যিকভাবে কিট উৎপাদনের জন্যে কাঁচামাল বিক্রি করবে বলে না জানিয়েছে।’

‘আশা করছি, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উৎপাদন শুরু করলে দেশে কিট নিয়ে কোনো সঙ্কট থাকবে না,’ যোগ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গণস্বাস্থ্য-আরএনএ বায়োটেক লিমিটেডের গবেষক দল ফেব্রুয়ারী থেকে এই কিটের ডিজাইন এবং উৎপাদন প্রক্রিয়া নিয়ে কাজ করছিল। এ প্রযুক্তির ব্যাপারে পুরো গবেষক দলের সরাসরি কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে বলেও জানায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। এর আগে ২০০৩ সালে র‍্যাপিড ডট ব্লট সার্স পিওসি কিট তৈরি দলের সদস্য ছিলেন ড. বিজন কুমার শীল। ওই কিটটি সিঙ্গাপুরে পেটেন্ট করা হয়েছিল। এবার করোনার কিট তৈরির জন্য গঠিত গবেষক দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিজন কুমার। তারা আরও জানায়, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ তাদের নিজেদের প্রয়োজনে দ্রুত করোনা ভাইরাসের কিট তৈরি করেছে।

বাঙালীয়ানা/এসএল

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.