গোঁফ নামাল ব্রুনাই সুলতান

Comments
বিশ্বজুড়ে নিন্দা, উদ্বেগ আর সেলিব্রেটিদের প্রতিবাদ ও দেশটিকে বয়কটের ঘোষণার পর গোঁফ নামিয়ে সমকামিতার জন্য পাথর ছুঁড়ে মৃত্যুর মত শাস্তি থেকে সরে এসেছে ব্রুনাই সুলতান হাসানাল বোলকিয়া।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ছোট এই দেশটি ৩ এপ্রিল, ২০১৯, থেকে শরিয়া আইন চালুর ঘোষণা দেয়। সেই আইন অনুযায়ী দেশটির মধ্যে সমলিঙ্গের মধ্যে যৌন সম্পর্ক, ধর্ষণ, ইসলামের নবীকে অবমাননার মতো অপরাধের শাস্তি হবে মৃত্যুদণ্ড। এছাড়া নতুন শরিয়া আইনে চুরির শাস্তি হিসেবে অঙ্গচ্ছেদের বিধান করা হয়।

কিন্তু এক মাসের মাথায় রোববার, ৫ মে, ২০১৯, দেশটির সুলতান শরিয়া আইন কার্যকর থাকলেও সমকামিতার জন্য পাথর ছুড়ে মৃত্যুর শাস্তি সংবলিত আইন থেকে সরে এসেছে।

খবরে বলা হয়েছে, সমকামিতার জন্য পাথর ছুঁড়ে মৃত্যুর শাস্তির আইন জারির পর বিশ্বজুড়ে তা নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। দেশটিতে সমকামিতা আগে থেকেই নিষিদ্ধ ছিল তবে এর শাস্তি ছিল ১০ বছরের কারাদণ্ড।

এক বক্তৃতায় সুলতান বলেন, যে শরিয়া পেনাল কোড অর্ডার বা এসপিসিওর বিষয়ে ওঠা প্রশ্ন নিয়ে তিনি সচেতন আছেন। এখন এসপিসিওর ওপর স্থগিতাদেশ দেয়ার সময়েও তিনি নতুন আইনের পক্ষে কথা বলেছেন। দেশটিতে এবারই প্রথম কোন শাসক প্রকাশ্যে নিজের করা আইনের ব্যাখ্যায় কথা বললেন।

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.