ষষ্ঠ আন্তর্জাতিক উইমেন ফিল্ম মেকারস্ কনফারেন্স শুরু হলো

Comments

অষ্টাদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচিত্র উৎসবে দু’দিন জানুয়ারী ১২  ও ১৩, উৎসবের  অংশ হিসেবে চলচ্চিত্রে নারীর ভূমিকা বিষয়ক ‘ষষ্ঠ আন্তর্জাতিক উইমেন ফিল্ম মেকারস্ কনফারেন্স’ উদ্বোধন হল রোববার সকালে ঢাকা ক্লাবের স্যমসন সেন্টারে।

বিশিষ্ট নারী পেশাজীবী নাঈমা কায়েস উদ্বোধন ঘোষণা করেন অষ্টাদশ ঢাকা  আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের এই বিশেষ সেশনের। কনফারেন্স পরিচালক, যুক্তরাষ্ট্রের বিশিষ্ট নারী চলচ্চিত্র সমালোচক, লেখক সিডনি লেভিন তার অভিজ্ঞতার আলোকে বিশ্ব রাজনীতি ও নারীর অবস্থান এবং চলচ্চিত্র বিষয়ে বক্তব্য রাখেন। আরও বক্তব্য রাখেন পোল্যান্ডের চলচ্চিত্র নির্মাতা জোয়ানা ক্রাউস। উদ্বোধনী পর্বে সভাপতিত্ব করেন উৎসব এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারপারসন কিশোয়ার কামাল।

এই কর্মশালায় দেশী বিদেশী নারী চলচ্চিত্র নির্মাতা ও ব্যক্তিত্বদের সাথে মত বিনিময়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের নারী নির্মাতারা অভিজ্ঞতা অর্জনের একটি সুবর্ণ সুযোগ পেলেন।

দু’দিনব্যাপী নারী নির্মাতারা তাদের কাজ করার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতা এবং তা থেকে উত্তরণের উপায় নিয়ে বিশ্বের খ্যাতিমান নারী নির্মাতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। বিশ্ব পরিবর্তনে নারীর নেতিবাচক ও ইতিবাচক ভূমিকা এবং প্রতিবন্ধকতা থেকে সমাধানের উপায়সমূহ উঠে আসবে এই কনফারেন্সে। এমনটাই আশা করছেন উদ্যোক্তারা। অষ্টাদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের মূল আকর্ষণগুলোর একটি এই উইমেন্স কনফারেন্স।

সকালে আয়োজন শুরু হয় “সাধনা”-র শিল্পীদের নৃত্যানুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে।

DIFF_Dance02

সাধনার শিল্পীদের নৃত্য পরিবেশনা।

এছাড়াও দেশ ও বিদেশের নারী নির্মাতাদের চলচ্চিত্র নিয়ে সাজানো হয়েছে উইমেন ফিল্ম মেকারস্ বিভাগটি। এতে দেশী-বিদেশী ২৯টি পূর্ণদৈর্ঘ্য ও স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র এবং প্রামাণ্যচিত্র অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। একটি স্বাধীন জুরি এই বিভাগের একটি শ্রেষ্ঠ কাহিনীচিত্র ও একটি শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্যচিত্রকে পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করবে। পুরস্কার হিসেবে থাকছে সনদ ও ক্রেস্ট।

বাঙালীয়ানা/এসএল

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.