জামাল খাসোগি হত্যা আবার সামনে আনলো নিউইয়র্ক টাইমস

Comments

সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার এক বছর আগে, সৌদি আরবের বিপুল ক্ষমতাশালী ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান বিরুদ্ধবাদীদের স্তব্ধ করবার গোপন প্রক্রিয়া অনুমোদন করেছিলেন, দ্য নিউইয়র্ক টাইমস শনিবার, ১৭ মার্চ, ২০১৯, এ বিষয়ে একটি রিপোর্ট করেছে।

এই অভিযানে বিরুদ্ধবাদী সউদীদের উপর নজরদারী, অপহরণ, আটক ও নির্যাতনের প্রক্রিয়া অন্তর্ভুক্ত ছিল বলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা উল্লেখ করে বলেছেন যে এই প্রচেষ্টা সম্পর্কে গোপনীয় গোয়েন্দা রিপোর্ট রয়েছে।

টাইমস জানিয়েছে, মার্কিন কর্মকর্তারা এটিকে সৌদি র‍্যাপিড ইন্টারভেনশন গ্রুপ হিসাবে উল্লেখ করেছেন।

২০১৮ সালের অক্টোবরে ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে খাসোগীকে হত্যা ও লাশ গুম করা কাজে নিয়োজিত দলটির সদস্যরা আরো বেশ কয়েকটি গোপন মিশন পরিচালনা করেছিল  বলে উল্লেখ করেছিল বলে রিপোর্টটি উল্লেখ করেছে।

ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট খাসোগীকে খুন করায় বিশ্বব্যাপী এর তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ হয়।

মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা রিপোর্টের ভিত্তিতে সিনেটরসহ উচ্চপদস্থ মার্কিন নীতিনির্ধারকরা ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানকে খাসোগি হত্যার জন্য দায়ী করলে এবং এমবিএস এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের চাপ দিলেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তা গ্রাহ্য করেননি।

এমবিএস প্রাথমিকভাবে বলেছিলেন যে খাসোগির ভাগ্য সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না, তবে পরবর্তীকালে খাসোগির মৃত্যুর জন্য র‍্যাপিড ইন্টারভেনশন গ্রুপের সউদ আল-কাহতানিসহ ১১জনকে গ্রেফতার করা হয়। সৌদি আরবের পাবলিক প্রসিকিউটর এই হত্যার দায়ে ১১ জনকে অভিযুক্ত করে। তবে খাসোগি হত্যার পরেই কাহতানিকে বরখাস্ত করা হয়েছে কিন্তু সৌদি কর্তৃপক্ষ খাসোগি হত্যার অভিযোগে তাকে অভিযুক্ত করেনি।

এই র‍্যাপিড ইন্টারভেনশন গ্রুপটি গত বছর গ্রেপ্তার হওয়া বিশিষ্ট নারী অধিকার কর্মীকে আটক ও নির্যাতনের সাথেও জড়িত বলে মনে করা হচ্ছে বলে টাইমস জানায়।

সৌদি কর্মকর্তারা এই ধরনের একটি দলের অস্তিত্ব অস্বীকার করে আসছে এবং তাদের কাজ সম্পর্কে টাইমসের প্রশ্নের কোন জবাব দিতে পারেনি।

র‍্যাপিড ইন্টারভেনশন গ্রুপ প্রিন্স সালমানের অনুমোদিত ছিল এবং সউদ আল-কাহতানির তত্ত্বাবধানে ছিল বলে মার্কিন কর্মকর্তারা টাইমসকে জানায়।

মার্কিন গোয়েন্দা রিপোর্টগুলিতে উল্লেখ নেই যে প্রিন্স সালমান এই দলের কাজের সাথে কিভাবে জড়িত ছিলেন কিন্তু এই রিপোর্টগুলিতে বলা হয়েছিল যে তারা মনে করে খাসোগি হত্যার প্রধান অভিযুক্ত কাহতানি ক্রাউন প্রিন্সের অত্যন্ত ঘনিষ্ট ব্যক্তি।

বাঙালীয়ানা/এসএল

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.