জামায়াত নিষিদ্ধে করতে হবে রায়ের অপেক্ষা

Comments

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে অবস্থান করা জামায়াতে ইসলামের নিষিদ্ধকরণে অপেক্ষা করতে হবে আদালতের রায়ের। বুধবার, ৬ ফেব্রুয়ারি এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই কথা বলেন।

জাতীয় সংসদে তরীকত ফেডারেশনের নজিবুল বশরের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতি নিষিদ্ধ হবে কি না, সে বিষয়টি জানতে রায় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এ–সংক্রান্ত মামলার রায় শিগগির হবে বলে আশা করা যায়।

বেসরকারি পর্যায়ে পেনশন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “জামায়াতে ইসলামীকে এ দেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে। তাদের নিষিদ্ধ করার জন্য আদালতে একটি মামলা রয়েছে। সেই মামলার রায় যতক্ষণ পর্যন্ত না হবে, ততক্ষণ আমরা কোনো কিছু করতে পারব না। জামায়াতের কোনো নিবন্ধন নেই। তবে এটা ন্যক্কারজনক যে তারা নিবন্ধিত না হয়েও জামায়াতের নামে ভোট করেছে। বিএনপির সঙ্গে একযোগে জোট করে ধানের শীষ নিয়ে প্রার্থী হয়েছিল। কিন্তু জনগণ তাদের ভোট দেয়নি। সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে।”

তাছাড়া, তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনা সংক্রান্ত নজিবুল বশরের অপর একটি সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা অপরাধী, মানুষ খুন থেকে ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলা, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ও অর্থ আত্মসাতের মামলায় সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে যারা বিদেশে পলাতক আছে, তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য আমাদের আলোচনা চলছে। বিশ্বাস করি তাদের ফিরিয়ে এনে শাস্তি কার্যকর করতে পারব।’

বাঙালীয়ানা/জেএইচ

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.