জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের ৫০ সপ্তাহের কারাদন্ড

Comments
দুনিয়া কাঁপানো গোপন নথি ফাঁস করা ওয়েবসাইট উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে ৫০ সপ্তাহ কারাদণ্ড দিয়েছে লন্ডনের একটি আদালত। জামিনের শর্ত লঙ্ঘন করে লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসে অবস্থান করায় বুধবার, ১ মে, ২০১৯, তাকে এই দণ্ড দেওয়া হয়।

একুয়েডর দূতাবাসে ৭ বছর ধরে আশ্রয় নিয়ে থাকা উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে ১১ এপ্রিল, ২০১৯, গ্রেফতার করে ব্রিটিশ পুলিশ। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে যুক্তরাজ্য আদালতের সমনে হাজির না হওয়ার কারণে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, বিচারক ডেবোরা টেলর বুধবার অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে সাজা ঘোষণা করেন। এ সময় অ্যাসাঞ্জ আদালতে ছিলেন। অ্যাসাঞ্জকে কালো জ্যাকেট ও ধূসর সোয়েটার পরা অবস্থায় দেখা যায়। বিচারক টেলর বলেন, দূতাবাসে অ্যাসাঞ্জ বিশেষ সুবিধা নিয়ে অবস্থান করে আইন ভঙ্গ করেছেন ও ব্রিটিশ বিচার ব্যবস্থাকে অপমান করেছেন।

১১ এপ্রিল, ২০১৯, এ জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে গ্রেপ্তার করা হয়। ২০১০ সালে আড়াই লাখ মার্কিন কূটনৈতিক তারবার্তা ও পাঁচ লাখ সামরিক গোপন নথি ফাঁস করে হইচই ফেলে দিয়েছিল উইকিলিকস। এর কিছুদিন পর সুইডেনে তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়। ওই মামলায় বিচারের জন্য যুক্তরাজ্য সরকার তাঁকে সুইডেনের কাছে হস্তান্তর করতে চেয়েছিল। এরপর গত বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাজ্যের একটি আদালত অ্যাসাঞ্জের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা বাতিলের সিদ্ধান্তও নেয় ।

বাঙালীয়ানা/এসএল

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.