তৃষ্ণা বসাকের কবিতা

Comments

প্রথমে এঁকেছি চাঁদ

প্রথমে এঁকেছি চাঁদ, যেহেতু সে কাছে এসেছিল, 
যেহেতু সে ভালবাসে, আজও বাসে কমলা স্তনের
সুগোল সূর্যাস্ত আর উদয়ের সবটুকু আলো,
চাঁদ বসেছিল কাঁধে, যেন তার পোষা শঙ্খচিল…

তারপর আঁকি রঙ, ধীরে ধীরে হয়ে ওঠে রেখা, 
ফুলদানি গ্রীবাখানি ধরে রাখে দ্বিধাচ্ছন্ন মুখ, 
সে কি ভালোবাসে আজও? হিয়া জানে লাখ লাখ যুগ,
তবু কাছে আসো যদি, টি দিই চাঁদের কপালে!

শেষতঃ পুরুষ আঁকি, নীল আর ধূসর কালোয়, 
বিষাদ ঘনায় তার চোখে, যেন গতজন্মদাগ, 
এলোখোঁপা অন্যমনা, ভালোবাসি, না বেসে পারিনি,
পুরুষ প্রণয় শেখে, রমণীটি স্বাতন্ত্র্যধারিণী!

বন্দুকবাজেরা

টানেলের এক দিকে মৃত্যু অন্যদিকে জীবন
একদিকে খাবার অন্যদিকে ভুখ-
মাঝখানে তোমরা ঠিক করো কী করবে
কোন এক অদূর গ্রামে, শীতের ভোর,
পুকুরের জলের ওপর সবুজ সর ভাসছে,
আর তার ওপর হাত রেখে দাঁড়িয়েছে সকালের রোদ,
বাবলা বা নিমের ডাল কিংবা গুঁড়ো মাজন ঘষতে ঘষতে অন্যমনস্ক বালকেরা
কোন একটা জম্পেশ খেলার ছক কষছে।
প্রথম বাস এসে দাঁড়াচ্ছে
চাঁপাতলির স্ট্যান্ডে,
আর সেই বাস থেকে একে একে নেমে আসছে
বন্দুকবাজেরা…

একটি জটিল হত্যা প্রক্রিয়া

নাপিতের হাত বাক্সের মতো
রোজ সকালে আমি ল্যাপটপ খুলি,
ভেতরে থরে থরে সাজানো ছুরি কাঁচি, নরুন, নখ ঘষার মতো
আমার শব্দেরা
সেগুলো দিয়ে আমি কাটি ছিঁড়ি ঘষি, উপড়ে নিই,
একটু এদিক ওদিক হলে মানুষ খুনও করতে পারি-
এই ভেবে আমি আস্তে আস্তে ল্যাপটপের গায়ে হাত বোলাই, ধুলো মুছি, শান দিই,
মুহূর্তের বুকে রেখে যাই একটি জটিল হত্যা প্রক্রিয়া…

ক্ষমাহীন হেমন্ত বাতাসে

আমার মায়ার হয়ে আমি তোকে খুন করতে চাই,
পড়াব অতীব অগ্নি, তুই উড়ে যাবি ছাই ছাই,
দেখাবি নিজের যশ, তোকে আমি বলব যাই যাই।

ঝুলেই রয়েছি আমি কল্পকাল। ঝোলাতে পারিনি।
মানুষকে ভেবে নিই সে আমার বাপ পিতামহ,
আঘাত পারিনি দিতে, বারবার আঘাত সয়েছি,
তারপর বসে আছি নিরঞ্জনা নদীর এপারে।
অনেক নদীই ছিল, তারা কেন দেখা করল না?
অনেক নদীই ছিল তারা কেন অশ্রু মোছাল না?

এসব তুচ্ছ কথা অবিরত ফিরে ফিরে আসে
হেমন্ত বাতাসে, প্রভু, ক্ষমাহীন হেমন্ত বাতাসে…

চাঁদবালি ২০২৩

এখানে অনেক কথা, কথা হয়, কথা চলে ফেরে
নষ্ট প্রাণ অরক্ষিত তোমাকে কখন এসে ছেঁড়ে,
বধ করে তোমাকেই যে ওকে দেখলে এতদিন,
কবরের ফুল হয়ে চুকিয়ে দিয়েছি সব ঋণ…

ভাদ্র জাতক

আমার ল্যাপটপের স্ক্রিনে বৃষ্টি কুচি হীরের মতো জ্বলছে,
আমার ঘাড়ের ওপর ফুঁ দিচ্ছে বৃষ্টি,
মেঘগুলো ঢুকে যাচ্ছে উপন্যাসের পাতায়,
আমার সমস্ত অক্ষর বিন্যাসে সে ভিজে চুলে দাঁড়িয়ে রয়েছে,
আমি কী ভাবে তোমাকে ভুলে যাব জন্ম মাস?

লেখক:
Trishna Basak
তৃষ্ণা বসাক, কবি ও কথাসাহিত্যিক, সাহিত্য একাডেমি কর্মকর্তা, কোলকাতা।

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.

About Author

বাঙালীয়ানা স্টাফ করসপন্ডেন্ট