নাটোরে নারীসহ ‘হিজবুত তওহিদের’ ১৯ কর্মী আটক

Comments

নাটোরের বড়াইগ্রামে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একটি সভা থেকে তিন নারীসহ ১৯ ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ তারিখ রাতে উপজেলার মাঝগাঁও ইউনিয়নের নোটাবাড়ীয়া গ্রামের একটি বাড়ি থেকে তাদের আটক করা হয়। পুলিশ বলছে, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক ব্যক্তিরা নিজেদের হিজবুত তওহিদের কর্মী বলে পরিচয় দিয়েছে।

আটক ব্যক্তিরা হল- উপজেলার নোটাবাড়িয়া গ্রামের সোহেল রানা (৩৫), জাহাঙ্গীর আলম (৩০), আব্দুস সালাম (৩৫), বনপাড়া পৌরসভার দিয়ারপাড়া গ্রামের বিপ্লব হোসেন (৩২) ও তাঁর ভাই আব্দুর রাজ্জাক (২৮), সাজ্জাদ হোসেন (৩০), বনপাড়া গ্রামের শফিকুল ইসলাম (৩৯), কালিকাপুর গ্রামের আব্দুস সবুর খান (৩৫), আগ্রাণ গ্রামের বাদশা মিয়া (৪৪), পাবনার চাটমোহর উপজেলার চকপাড়া গ্রামের আকরাম হোসেন (৩৫), সদর থানার চরগোবিন্দপুর গ্রামেররফিকুল ইসলাম (৩১), রাজশাহী জেলার রাজপাড়া থানার বিলশিমলা গ্রামের আসাদুজ্জামান (৪৫), মতিহার থানার শ্যামপুর গ্রামের রবিউল করিম (৪৫), বোয়ালিয়া থানার তালাইমাড়ি গ্রামের তোতা মিয়া (৫০), বগুড়া জেলার গাবতলী থানার জাহাঙ্গীর আলম (৫০), ঝিনাইদহের মহেষপুর গ্রামের শামসুজ্জামান মিলন (৩০), নরসিংদীর সদর থানার পাথরপাড়া গ্রামের আফরোজা বেগম (৩৫), রাজশাহীর চারঘাট থানার বালুদিয়ার গ্রামের লাভলী বেগম (৩৪) ও মেহেরপুরের গাংনী থানার দেবীপুর গ্রামের বেনুর বেগম (৩৫)।

আটক ব্যক্তিরা নিজেদের হিজবুত তওহিদের কর্মী বলে দাবি করলেও। তারা আসলে কিসের সঙ্গে জড়িত এবং কী উদ্দেশ্যে সভা করছিল, সে বিষয়ে খোঁজ নিতে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের বিষয়ে পরবর্তী সময়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.