ভারতে ক্যানসারের ওষুধের দাম কমল

Comments
ভারতে ক্যানসারের জীবনরক্ষাকারী ওষুধের দাম কমল অনেকটা। ওষুধের গায়ে লেখা সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য (এমআরপি, ম্যাক্সিমাম রিটেল প্রাইস) সর্বনিম্ন ৩ শতাংশ থেকে সর্বোচ্চ ৮০ শতাংশ পর্যন্ত কমে যাবে। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের রাসায়নিক এবং সার মন্ত্রকের অধীন দি ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথরিটি (এনপিপিএ) সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি মাসের আট তারিখ থেকে ক্যানসারের বেশ কয়েকটি নন শিডিউল ওষুধের ক্ষেত্রে নতুন এই দাম কার্যকর হয়েছে।
বর্তমানে ক্যানসারের ৫৭টি শিডিউল ওষুধের দাম ভারত সরকার নিয়ন্ত্রণ করে। নতুন এই ঘোষণার মাধ্যমে আরও ৪২টি নন শিডিউল ওষুধের ক্ষেত্রেও এই মূল্য নিয়ন্ত্রণ করা হল। কর্পোরেট হাসপাতাল এবং ওষুধের দোকানগুলিকে এখন থেকে বেঁধে দেওয়া মার্জিনে ওই সব ওষুধ বিক্রি করতে হবে। 

চিকিৎসকদের মতে, ক্যানসার প্রতিরোধের চিকিৎসা মূলত দু’ধরনের হয়। প্রথম, কেমোথেরাপির মাধ্যমে আক্রান্ত কোষগুলিকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়। অন্যটি আক্রান্ত জিনের আগ্রাসনকে থামিয়ে দিতে হয় বায়োলজিক্যাল থেরাপি। নতুন এই ঘোষণার ফলে কোলন এবং ফুসফুস ক্যানসারের জন্য বায়োলজিক্যাল থেরাপির ওষুধ বিভাসিজুমাব, লিম্ফোমা এবং ব্লাড ক্যানসারের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত রিটুক্সিম্যাব এবং ব্রেস্ট এবং ব্লাডার ক্যানসারের জন্য ব্যবহৃত কেমোথেরাপির ওষুধ লাইপোজোমাল ডক্সোরুবিসিনের ম্যাক্সিমাম রিটেল প্রাইস বা এম আর পি অন্তত ৫০ শতাংশ কমে গিয়েছে। এমনই ৪২টি নন শিডিউল ওষুধের উপরেই এর কম-বেশি প্রভাব পড়বে।

তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার

বাঙালীয়ানা/এসএল

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.