মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানোর বিষয়ে অভিযুক্ত সিন্ডিকেটকে শোকজ করা হবে। অভিযোগ সংক্রান্ত সব তথ্য সংগ্রহ করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম।

মঙ্গলবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৮ তারিখ সকালে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে রিপোর্টার্স ফর বাংলাদেশ মাইগ্রেন্ট-এর উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়ার শ্রম বাজার নিয়ে যে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে তা স্পষ্ট হওয়ার জন্য বাংলাদেশি দূতাবাসের মাধ্যমে সেদেশের সরকারকে একটি ‘ভারবাল নোট’ ইতিমধ্যে দেওয়া হয়েছে। আশা করি খুব শিগগিরি একটি স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যাবে। এই মুহূর্তে বলতে পারি মালয়েশিয়ায় লোক পাঠানো চলমান রয়েছে।

মালয়েশিয়া

মালয়েশিয়া সিন্ডিকেটকে শোকজ করা হবে:বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী

সম্মেলনে মন্ত্রী বলেন, সিন্ডিকেটের মাধ্যমে শ্রমিক নিয়োগের বিষয়টি নিয়ে মালয়েশিয়া সরকার বাংলাদেশকে কিছু জানায়নি। ভুক্তভোগীদের দরখাস্ত করে অভিযোগ জানাতে হবে। এ আহ্বানের পরই তিনি সাংবাদিকদের তোপের মুখে পরেন। পরে তিনি তা পরিবর্তন করে সিন্ডিকেটকে শোকজ করার ঘোষণা দেন।

মন্ত্রী বলেন, যে ১০ এজেন্সির কথা বলা হচ্ছে তাদের আমরা নিয়ন্ত্রণ করি না, তাদেরকে মালয়েশিয়া সরকার কাজ দিয়েছে। কিন্তু একটা অভিযোগ যেহেতু উঠেছে তাদের আমরা শোকজ করবো, একই সঙ্গে সৌদি আরবে জনশক্তি সম্পর্কিত অভিযোগগুলো নিয়ে তাদের সঙ্গেও কথা বলা হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মালয়েশিয়ার শ্রম বাজার এখনও চালু আছে, শুধু পদ্ধতিগত পরিবর্তনের কথা বলছে তারা। এখনও ৩০ হাজার ভিসা সম্বলিত অপেক্ষমান শ্রমিক আছে। তারা তো বলেনি যে এরাও যেতে পারবেনা। শুধু ৩১ আগস্ট পর্যন্ত যে এসপিপিএ সিস্টেম আছে সেই সিস্টেমে যেতে পারবে। ১ সেপ্টেম্বর থেকে অটোমেটিকালি পুরোনো পদ্ধতিতে যাবে, বলেন তিনি।

সম্মেলনের মন্ত্রণালয়ের সচিব নমিতা হালদার, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) মহাপরিচালক সেলিম রেজা, রিপোর্টার্স ফর বাংলাদেশি মাইগ্রেন্ট সভাপতি ফিরোজ মান্না, সাধারণ সম্পাদক মাসুদুল হক সহ বিভিন্ন প্রিন্ট , ইলেকট্রনিক এবং অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

বাঙালীয়ানা/এজে

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.