মুর্তজা কুরেইরিসের মৃত্যুদণ্ড বাতিল হতে পারে

Comments

১৩ বছর বয়সে আটক মুর্তজা কুরেইরিসকে দেওয়া মৃত্যুদণ্ড বাতিল করে ২০২২ সালে তাকে মুক্তি দেওয়া হতে পারে বলে শনিবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন সৌদি আরবের এক কর্মকর্তা। তবে এটি সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনও বিবৃতি নয়।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন সম্প্রতি তাদের এক বিশেষ অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে জানায়, যে সময় আরবের জনবিরোধী শাসকদের বিরুদ্ধে যখন বসন্তের ঢেউ খেলে গিয়েছিল, সে সময় ২০১১ সালে সৌদি রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিল  শিশু মুর্তজা কুরেইরিস। বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে নিরস্ত্র অবস্থায় সাইকেল নিয়ে অহিংস প্রতিবাদে নেমেছিল সে। এর ২ বছর পরে যখন মুর্তজা কুরেইরিসের বয়স ১৩ বছর তখন তাকে গ্রেফতার করা হয় সেই প্রতিবাদের অভিযোগে। সুদীর্ঘ নিপীড়ন ও নির্যাতনের মধ্য দিয়ে বন্দি মুর্তজা কুরেইরিসের মিথ্যা স্বীকারোক্তি আদায় করা হয়। সবশেষে শান্তিপূর্ণ সরকার বিরোধিতার শাস্তি হিসেবে ওই শিশুর মৃত্যুদণ্ডের সাজা ঘোষিত হয়েছে। একই অভিযোগে সম্প্রতি আরও তিন কিশোরের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করে সৌদি আরব।

Murtaja Qureiris

মুর্তজা কুরেইরিস

সিএনএন-এর প্রতিবেদন বলে, এই মৃত্যুদণ্ড আদতে সরকারের শিয়াবিরোধী দমন অভিযানের অংশ। ২০১৫ সালে সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান এই শিয়াবিরোধী অভিযান জোরালো করেন, চলতে থাকে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে উৎখাত। ৎবে সৌদি আরব বরাবরই এই শিয়াবিরোধী অভিযানের ব্যাপারে অস্বীকার করে আসছে।

ওই কর্মকর্তা বলেন, মুর্তজার বিরুদ্ধে পুলিশ ও ফার্মাসিকে লক্ষ্য করে ককটেল নিক্ষেপ করা ও গুলি চালাবার মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়। এছাড়া ২০১৪ সালে জার্মান রাষ্ট্রদূতের ওপর হামলা চালানোরও চেষ্টা করেছে সে, এমন অভিযোগও ছিল।

বাঙালীয়ানা/এসএল

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.