লাই-ডালিমের কুঁড়ি

Comments

। পিয়ালী বসু ঘোষ ।

যে কোমল নিষাদে জ্যোৎস্না জমাট বাঁধে তেমন ফ্যাট ফ্যাটে জ্যোৎস্নায় সব দরজা হাট করে খুলে রেখে পালিয়ে যেতে সাধ হয়। কোনো মুখস্মৃতি নয় কোনো ভোরেলা শুদ্ধ তানে যাদের একদা ধরে রেখেছিলাম, সেসব শীতল বিষাদ পার করে একটা বৃষ্টিস্নাত বনের কাছে যেতে ইচ্ছে হয়। চারপাশ ভরে থাকবে কুয়াশায়। জড়িয়ে ধরে বুকের গন্ধ নিতে পারি এমন কেউ থাকবে না আর তাই কাঁদবার অবসর চাইলেও পাওয়া যাবে না। সেই তো বেশ। ছাতিম গন্ধে ঘোরগ্রস্থ মন দ্বিধায় থাকবে তখনও। ঘর না বাহির? মন বলবে ঘর, পা বলবে বাহির। আচ্ছা, যদি উল্টোটা হয়? পা বলবে ঘর, মন বলবে বাহির! আসলে অনন্ত শূন্যে সব একাকার। কেন যে নিজেকে ছাড়া অন্য কিছু খুঁজে বেড়ালো মন আজীবন, কি জানি! আজীবন কেন? জীবন কি ফুরিয়েছে? তুমি আর তুমি নেই কিম্বা আমি আর নয় সে আমি? না, না কে বলে এসব? সবই আছে বৃত্তে, উপবৃত্তে। শেকলে শেকলে। শরীর ফুরোলে যেমন আত্মা থেকে যায়, শিল্পী ফুরোলে যেমন শিল্প থেকে যায়, তেমনি উদ্ধত আমির শেকলে থেকে যায় নম্র আমির ফুল। কতকাল হয়েছে এসব খোয়া গেছে, কেবল আরশি ভেদ করে ওপারের আমিকে ছুঁয়ে দেখার লোভ সংবরণ করা হয়নি এখনো। যেভাবে দেখা হয়নি, লাল ডালিমের দানার ভেতর কিভাবে ভরে রাখে গাছ আমার রক্তকণিকার দাম, কিভাবে দীর্ঘ পথে পিছু নেয় ডালিমের ফুল, গাছ কৌটোর লাল। কিভাবে বোঝাই, কাকেই বা বোঝাই আমি তো ক্ষণে মরি–ক্ষণে বাঁচি। জন্ম মৃত্যু আমার কাছে ধর্মযুদ্ধের মতো। ধরে রাখার ব্যাকুল স্রোতে ছেড়ে দেওয়া জলস্রোত।

এককালে পাহাড়ের প্রেমে সীতা হয়েছিলাম। বর্ষার জলক্রিয়ায় ধুয়ে গেছে সে সব রতি কদমের ফুল। সঙ্গী নাছোড় অপসৃয়মান দীর্ঘ অতীত। উফ অসহ্য! এই রানিক্ষেতের মরশুমে সোনার ঝুমকো নিয়ে আমি কি করবো? যা গেছে তা যাক। ডুবে যাক গজল ডোবার জলে আর আমি ভেসে যাই। যেভাবে বর্তমান ভেসে যায় ভবিষ্যৎ ভাবনায়। আমি চুপচাপ দৃশ্যের ভেতরে লুকিয়ে থাকি। কেউ দেখলো না কিন্তু আমি রইলাম, দেখলাম। দেখলাম বিকেল গড়ালো সন্ধ্যায় বিষ্ণুদে থেকে সুবোধ সরকার সব কবিতার গন্তব্যই এক। ছেঁড়া ঘুড়ির মতো মাঝ আকাশে নিজের মতো পাক খাওয়া। খানিক দৃষ্টি আকর্ষণের পর কোথায় যে হারায় কেউ জানে না। বেঁচে থাকার আলো হাত গলে পড়ে যাচ্ছে ভেবে কী তাড়াহুড়ো সব! আমার তাড়া নেই। অদৃশ্য জাদুকর আমার কোচড়ে ফেলে গেছে লা-ই ডালিমের কুঁড়ি। ফুটবে কি…? কত অজানার ভিতর কী অদৃশ্য বেঁচে থাকি এই কুঁড়ি ফোটা দেখবো বলে।

লেখক:
Piyali Bosu Ghosh 2
পিয়ালী বসু ঘোষ
কবি ও কথাসাহিত্যিক, কলকাতা

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.

About Author

বাঙালীয়ানা স্টাফ করসপন্ডেন্ট