শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশী শিশু নিহত

Comments

শ্রীলঙ্কায় তিনটি গির্জা, তিনটি হোটেল ও একটি ব্যাংকুয়েট হলে ভয়াবহ সিরিজ বোমা বিস্ফোরণে নিহত ২৯০ জনের মাঝে একজন বাংলাদেশী শিশু রয়েছে। পারিবারিক সূত্রে খবর নিশ্চিত করেছে গণমাধ্যম।

রোববার, ২১ এপ্রিল, ২০১৯, সকালে ইস্টার সানডের সকালে রাজধানী কলম্বোর শাংগ্রি লা হোটেলে স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে যে বিস্ফোরণ হয় তাতে জায়ান চৌধুরী নামের ৮ বছরের শিশু নিহত হয়েছে। জায়ান পিতার সাথে হোটেলের রেষ্টুরেন্টে প্রাতরাশ গ্রহণ করছিল। ঘটনায় আহত শিশুর পিতা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স কলম্বোর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

খবরে প্রকাশ মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স ও তার স্ত্রী শেখ আমেনা সুলতানা সোনিয়া দুই সন্তান জায়ান চৌধুরী ও জোহান চৌধুরীকে নিয়ে শ্রীলঙ্কা বেড়াতে এসেছিলেন। ঘটনার সময় শেখ আমেনা সুলতানা সোনিয়া ছোট ছেলে জোহানকে নিয়ে হোটেল কক্ষে অবস্থান করছিলেন।

রোববার বিকেলেই পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম জানান, বোমা হামলার ঘটনার পর থেকে এক শিশুসহ দুই বাংলাদেশির খোঁজ মিলছে না। দুইজন নিখোঁজ থাকার তথ্য প্রতিমন্ত্রী জানালেও ওই সময় তাদের পরিচয় জানানো হয়নি।

জায়ান চৌধুরী রাজধানীর উত্তরার সানবিমস স্কুলের প্রথম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

বিভিন্ন আইনগত আনুষ্ঠানিকতা শেষে জায়ান চৌধুরীর মরদেহ বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, বেলা ১১টায় একটি ফ্লাইটে দেশে আসবে। আসরের পর চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে হবে জানাজা। পারিবারিক সূত্রে এ খবরনিশ্চিত হওয়া গেছে।

এর আগে সোমবার সকালে শেখ সেলিমের বাসায় গিয়ে পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা জানানোর পর শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন সাংবাদিকদের বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরীর (৮) মরদেহ মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কা থেকে দেশে আনা হবে। তবে বিস্ফোরণে দুই পায়ে গুরুতর জখম নিয়ে জায়ানের পিতা মশিউল হক চৌধুরী সেখানকার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় তাকে এখনই দেশে আনা হচ্ছে না।

উল্লেখ্য, শেখ আমেনা সুলতানা সোনিয়া বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাংসদ শেখ ফজলুল করিম সেলিমের কন্যা।

বাঙালীয়ানা/এসএল

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.