সৌদি আরবে যাবেন প্রধানমন্ত্রী

Comments

এই সপ্তাহেই সৌদি আরব সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রত্যাশা অর্থনৈতিক ও সামরিক সহযোগিতা আরও জোরদার করার। সফরে প্রধানমন্ত্রী বৈঠক করবেন সৌদি আরবের বাদশা সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের সাথে। তাছাড়া কথা রয়েছে যুবরাজ মোহাম্মেদ বিন সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের সাথে সাক্ষাতের।

সরকারের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সরকারের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘এই সফরটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এর মাধ্যমে দুই দেশের রাজনৈতিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এই সফরে ঢাকা ব্যবসা, বাণিজ্য, সামরিক সহযোগিতা, শ্রম সংস্থানসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে আরও জোরদার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক তৈরি করতে চায়। কারণ এসব বিষয়ে সৌদিদের আগ্রহ আছে। বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ একটি লাভজনক দেশে পরিণত হয়েছে এবং আমরা এই সফরের পরে দুই দেশের সম্পর্কে একটি গুণগত পরিবর্তন দেখতে পাবো বলে আশা করি।’ তিনি আরও বলেন, ‘এই সফরে প্রধানমন্ত্রী প্রায় ৩০জন প্রধান সৌদি ব্যবসায়ীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন, যাদের বিদ্যুৎ, জ্বালানি, পেপার মিলসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে আগ্রহ আছে।’ এই সফরে দুই দেশের বেসরকারি খাতের মধ্যে চার থেকে পাচঁটি সমঝোতা স্মারকেরও সম্ভাবনা আছে বলেও তিনি জানান।

তাছাড়া, চট্টগ্রামে একটি অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের জন্য সৌদি বেসরকারি খাতের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলে জানা যায়। আরও জানা যায়, এই অর্থনৈতিক অঞ্চলে সৌদি আরবের বিনিয়োগ থাকবে উন্মুক্ত। এছাড়াও, এই সফরে দ্বিপক্ষীয় সামরিক সহযোগিতা সমঝোতা স্মারক সাক্ষরের সম্ভাবনার কথা জানান এই কর্মকর্তা।

জানা গেছে, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের জন্য সৌদি আরবের সহযোগিতা চাইবে বাংলাদেশ। এছাড়া, রিয়াদে নব নির্মিত বাংলাদেশ চ্যান্সেরি ভবনও এই সফরে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী ১৬ অক্টোবর রওয়ানা হয়ে ১৯ অক্টোবর ঢাকায় ফেরত আসবেন। আর এই সফরটি গত তিন বছরে সৌদি আরবে প্রধানমন্ত্রীর চতুর্থ সফর।

বাঙালীয়ানা/জেএইচ

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.