নিখোঁজের একদিন পর বুড়িগঙ্গা নদী থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মো. আরিফুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৩১ জুলাই) বিকাল ৪ টার দিকে রাজধানীর সদরঘাটের লালকুঠিঘাট বরাবর বুড়িগঙ্গা নদীর মাঝখান থেকে ভাসমান অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

আরিফুল ইসলাম

মো. আরিফুল ইসলাম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র। তার বাবার নাম মো. মঈন উদ্দিন। বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর থানার মারুফা গ্রামে। তিনি কেরানীগঞ্জের ইস্পাহানী আবাসিক এলাকার একটি মেসে থেকে পড়াশুনা করতেন। সোমবার খেয়া নৌকায় বুড়িগঙ্গা পাড়ি দিতে গিয়ে পানিতে ডুবে তিনি নিখোঁজ হন। তবে প্রথমে কেউ জানতে পারেনি নিখোঁজ যুবকের নাম পরিচয়। পরে একটি বইপত্র রাখার ব্যাগ পানিতে ভেসে উঠায় সেখান থেকে আরিফুলের পরিচয়পত্র পাওয়া যায়।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই মো. ইয়াকুব আলী জানান, লোক মারফত খবর পেয়ে বুড়িগঙ্গা নদী থেকে আরিফুলের লাশটি উদ্ধার করা হয়। খবর পেয়ে নিহতের বড় ভাই মো. রাশেদুল ইসলাম মর্গে গিয়ে তার ছোট ভাই আরিফুল ইসলামের লাশ শনাক্ত করেন।

আরিফুলের শরীরে কোনও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাচ্ছে না বলে পুলিশ জানিয়েছে।

মন্তব্য করুন (Comments)

comments

Share.